সরকারের রাজনৈতিক ও নৈতিক জোর না থাকায় সর্বত্র দুর্নীতিবাজেরা বেপরোয়াঃসাইফুল হক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেছেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরুর কথা বলা হলেও দুর্যোগ মোকাবেলায় স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও চিকিৎসাসহ সামগ্রিক পরিস্থিতি একেবারে লেজেগোবরে; সবকিছুতে গা ছেড়ে দেওয়া ভাব। অবস্থা দেখে মনে হয় সরকার নিয়তির উপরেই সব ছেড়ে দিয়েছে। করোনা সংক্রমন ও মৃত্যুজনীত পরিস্থিতি যখন দীর্ঘায়িত হচ্ছে তখন করোনার জন্য প্রস্তুত করা হাসপাতালসমূহ তুলে দিয়ে দেশবাসীর কাছে ভুল বার্তা দেয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকালে গাজীপুরে পার্টির কর্মী-সংগঠকদের সভায় তিনি বলেন, দেশে করোনার পরীক্ষা ও চিকিৎসা ব্যবস্থার প্রতি মানুষের নজিরবিহীন হতাশা ও অনাস্থাকে সরকার বিবেচনায় নিচ্ছে না। হাসপাতালবিমুখ মানুষের ক্ষোভের কারণসমূহ সরকার তথা সংশ্লিস্ট প্রতিষ্ঠানসমূহ আমলেই নিচ্ছে না। এই পরিস্থিতি গভীর উদ্বেগ ও উৎকন্ঠার। তিনি বলেন, ক্ষমতার থাকার জন্য এখন আর ভোটের প্রয়োজন না থাকায় সরকার মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিন খেলতে পারে না।

তিনি ক্ষোভের সাথে উল্লেখ করেন, দেশ পরিচালনায় সরকারের রাজনৈতিক ও নৈতিক শক্তি না থাকায় সর্বত্র আর দুর্নীতিবাজদের রাজত্ব প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। করোনা দুর্যোগকে দুর্নীতিবাজেরা সুযোগ হিসাবে গ্রহণ করেছে। রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক ছত্রছায়ায় থেকে এখন এরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

দুর্নীতি-দুবর্ৃৃত্তায়নের যেসব রোমহর্ষক ঘটনা বেরিয়ে আসছে তা নিতান্তই খণ্ডাংশ মাত্র।
তিনি এই পরিস্থিতির অবসানে রাজনৈতিক পরিচয়ের বাইরে এসে দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে চিরুনী অভিযান, স্বাধীন ও নিরপেক্ষ তদন্ত, তাদের উপযুক্ত বিচার, লুন্ঠনকৃত অর্থ উদ্ধার ও দুর্নীতিবাজ সরকারি কর্মকর্তাদের গ্রেফতারে সরকারের পূর্বানুমতির বৈষম্যমূলক বিধান বাতিলের আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, সরকারের ঘর পরিস্কার হলে ৮০ ভাগ দুর্নীতি এমনিতেই কমে যাবে।

তিনি গাজীপুরের হারিকেন অঞ্চলে পার্টির আঞ্চলিক অফিস উদ্বোধন করতে যেয়ে উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন। পার্টির গাজীপুরের সংগঠক শ্রমিকনেতা মোঃআল আমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সভায় বক্তব্য রাখেন পার্টির কেন্দ্রীয় নেত্রী বহ্নিশিখা জামালী, আকবর খান, অরবিন্দু বেপারী বিন্দু, পার্টির সংগঠক ডা. মনোয়ার হোসেন, নাঈম খান, মো. ফারুক প্রমুখ।

সভায় বহ্নিশিখা জামালী বলেন, অধিকার আদায়ে লড়াকু আন্দোলন-সংগঠনের কোন বিকল্প নেই। আকবর খান দাবি আদায়ে ঐক্যবদ্ধ সংগ্রাম গড়ে তোলার আহ্বান জানান।
সভার শুরুতে করোনায় এবং ভবন ধস ও অগ্নিকাণ্ডে বিভিন্ন সময়ে যারা প্রাণ হারিয়েছেন তাদের জন্য শোক জানিয়ে দাঁড়িয়ে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

Comments are closed.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ